বর্তমান অবস্থা খুব খারাপ, আগের ভারত আর এই ভারতের অনেক তফাত – মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

কলকাতা, বৃহস্পতিবার

আমরা আট বছরে যে কাজ করতে পেরেছি তা ৮০ বছরেও কেউ করে দেখাক। নেতাজি ইনডোরে স্টেডিয়ামে শিক্ষা রত্ন পুরষ্কার প্রদান অনুষ্ঠানে রাজ্যের উন্নয়ন নিয়ে এই ভাবেই প্রতিক্রিয়া জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সঙ্গে তিনি বলেন, শিক্ষাই সমাজ সভ্যতা তৈরী করে। শিক্ষিত সমাজের কাছে আমাদের আবেদন, আপনাদের ঋণ কোনদিন টাকা দিয়ে শোধ করা যায় না। আট বছরের কাজে আমাদের অনেক তিক্ত অভিজ্ঞতা হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, উপার্জনের থেকে আমাদের বেশি টাকা চলে যাচ্ছে ঋণ শোধ করতে।

দেশের অর্থনীতি নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও বলেন, বর্তমান অবস্থা খুব খারাপ, অর্থনীতির ধস যদি নামে তাহলে সেটা খুব খারাপ হবে। শিক্ষিত সমাজের কাছে আবেদন করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ইতিহাস বদলানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। সেটার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে বাংলার শিক্ষিত সমাজকে। উন্নত সমাজ গড়ে তুলতে এগিয়ে আসতে হবে শিক্ষিত সমাজকে। সঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, আগের ভারতের সঙ্গে এই ভারতের অনেক তফাত। আমাদের হুমকির মধ্যে কাজ করতে হচ্ছে।

বিরোধীদের কটাক্ষ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, যারা ক্ষমতায় নেই তাদের কাছে খুব সোজা বিভ্রান্তি ছড়ানো। আমরা বিরোধী যখন ছিলাম তখন আমরা সেই নিয়েই সমালোচনা করতাম যেটা করা সম্ভব। সিঙ্গুর, নন্দীগ্রামে জমি দখল নিয়ে অন্যায় ছিল তাই আমরা প্রতিবাদ করেছিলাম।

পাশাপাশি তিনি বলেন, বাংলা অনেক কাজে সেরা। অনেক বিষয়ে বাংলা এক নম্বরে। বাংলা বর্তমানে মডেল। আগে যেখানে বাংলাকে অবহেলা করা হতো, সেখানে আমূল পরিবর্তন হয়েছে বাংলার মাটিতে।

রাজ্যের সামগ্রিক পরিকাঠামোর কথা বলার পাশাপাশি কেন্দ্রের সমালোচনা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, কেন্দ্র একটা প্রকল্প চালু করে কিছুদিনের মধ্যে সেটা বন্ধ করে দেয়। এতে আমাদের সমস্যা হয়। কৃষি ঋণের ক্ষেত্রে এই সমস্যা তৈরি হয়েছিল। কেন্দ্রের হাতে রিজার্ভ ব্যাংক আছে তারা টাকা ছাপতে পারে আমরা সেটা পারি না।

Be the first to comment on "বর্তমান অবস্থা খুব খারাপ, আগের ভারত আর এই ভারতের অনেক তফাত – মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*


Skip to toolbar