আর ঝুঁকি নয়, পঞ্চম দফার নির্বাচনে সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী

কলকাতা ডেস্ক,

কলকাতা, মঙ্গলবার,

প্রথম চার দফার নির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে বিস্তর চর্চা হয়েছে। যেখানে কমিশনকে কাঠগোড়ায় দাঁড় করিয়েছে সব রাজনৈতিক দলই। কেবল রাজনৈতিক দল নয়। ভোট কর্মী থেকে গ্রামের সাধারণ মানুষ সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবি করেছে। সোমবার অর্থাৎ চতুর্থ দফার নির্বাচনে আসানসোল উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। গ্রামবাসীদের লাঠি চালাতে হয়েছে পুলিশকে। সেখানে আহত হয়েছিলেন বেশ কয়েকজন। প্রায় প্রতিটি নির্বাচনে দফায় দফায় বিক্ষোভ দেখিয়েছেন বিভিন্ন জায়গার ভোট কর্মীরা। সঙ্গে বিরোধী রাজনৈতিক দল বিশেষত বিজেপির অভিযোগ রাজ্য পুলিশের সুযোগ নিয়ে অবাধে বুথ জ্যাম করেছে তৃণমূল।

এবার এই সব অভিযোগ থেকে রেহাই পেতে পঞ্চম দফায় কোন বুথেই রাজ্য পুলিশ থাকবে না বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশন এক সূত্র জানাচ্ছে তারা ইতিমধ্যেই বাড়তি বাহিনী আনার ভাবনা শুরু করে দিয়েছে। তবে, বাড়তি কত বাহিনী আসছে সেটা এখনও পরিষ্কার নয়। তবে, রাজ্য পুলিশের উপরে আর ভরসা করতে রাজি নয় নির্বাচন কমিশন।

মঙ্গলবার সকালে নির্বাচন কমিশনে কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে অভিযোগ করে বিজেপি। তারা জানিয়েছে ভোটের দিন সকালে বেশ কয়েক ঘণ্টা তৎপরতা কম ছিল কেন্দ্রীয় বাহিনীর। প্রায় একই অভিযোগ করেছেন কংগ্রেস নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য। তিনি জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় বাহিনীকে নিস্ক্রিয় করে রাখা হয়েছে।

নির্বাচন কমিশন আশাবাদী সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী রাখলে এই সব অভিযোগ কমানো সম্ভব।

Be the first to comment on "আর ঝুঁকি নয়, পঞ্চম দফার নির্বাচনে সব বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*


Skip to toolbar